লিভারেজিং ধনী হওয়ার আসল রাস্তা Parabole Of Pipe line Summary Financial Education Personal Finance

লিভারেজিং ধনী হওয়ার উপায় Parabole Of Pipe line Book Summary Financial Education Personal Finance আর্থিক স্বাধীনতা অর্জনের জন্য এবং নিজেকে অর্থনৈতিক বন্ধন থেকে মুক্ত করার জন্য পাইপলাইন তৈরি খুবই জরুরী একটি বিষয়। আর্থিক স্বাধীনতা অর্জনে আপনার এমন কোন ইনকামের পাইপলাইন…

লিভারেজিং ধনী হওয়ার আসল রাস্তা  Parabole Of Pipe line Summary Financial Education Personal Finance

Source

0
(0)

লিভারেজিং ধনী হওয়ার উপায় Parabole Of Pipe line Book Summary Financial Education Personal Finance
আর্থিক স্বাধীনতা অর্জনের জন্য এবং নিজেকে অর্থনৈতিক বন্ধন থেকে মুক্ত করার জন্য পাইপলাইন তৈরি খুবই জরুরী একটি বিষয়। আর্থিক স্বাধীনতা অর্জনে আপনার এমন কোন ইনকামের পাইপলাইন প্রয়োজন যা সবসময় আপনাকে ইনকাম করে দিবে। পাইপলাইন তৈরির সবচাইতে শক্তিশালী ধাপটি হলো লিভারেজিং। লিভারেজিং মূলত দুই প্রকার সময় লিভারেজ এবং টাকা-পয়সার লিভারেজ।
সাল ১৬০৪ এর আগ পর্যন্ত মানুষ যে কোন বইয়ের কপি করত হাতে লিখে। যার জন্য প্রতিটি বই লিখতে প্রচুর টাকা খরচ হতো। ফলাফল হিসেবে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়াটা খুবই ব্যয়বহুল ছিল কারণ পরিস্থিতিটা এমন ছিল যে একটা বই কিনার টাকা সংগ্রহ করতে একটা মধ্যবিত্ত পরিবারের এক মাসের সমস্ত ইনকাম চলে যেত। ১৬০৪ সালের আগ পর্যন্ত প্রতিটি বই শুধুমাত্র হাতে কপি করে বেচাকেনা করা হতো। তাই উচ্চবিত্ত এবং রাজ পরিবারের লোকেরা ছাড়া বাকি মানুষজন খুব বেশি উচ্চশিক্ষিত হতে পারত না। কিন্তু একজন জার্মান বিজনেসম্যান এই সমস্যাটির সমাধান নিয়ে আসেন লিভারেজিং এর মাধ্যমে। তিনি এমন এক ছাপাখানার মেশিন আবিষ্কার করেন যেটা দিয়ে যত খুশি তত কপি তৈরি করা যেত। আর এই নতুন আবিষ্কারটি তাকে কোটি কোটি টাকা কামিয়ে দিয়েছে। এটা হয়েছে তখন যখন তিনি সমাজের একটা বড় সমস্যা সমাধান করতে পেরেছেন। তিনি বই কপি করার এই সমস্যাটাকে লিভারেজিং এর মাধ্যমে সহজ করে দিয়েছেন। এবং মানবতা আজও তার এই অবদানের জন্য তাকে স্বীকার করবে। সে এমন একটি মেশিনের মাধ্যমে লিভারেজিং করেছিলেন যার ফলে বই কপি করার খরচ অনেক কমে যায় এবং সাধারণ পরিবারের লোকজনও উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার মতো সুযোগ-সুবিধা পায়। এটাই হলো লিভারেজিং এর পাওয়ার। যখন আমরা আমাদের ব্যক্তিগত জীবনে এই প্রিন্টিং মেশিনের মত লিভারেজিং এর পাওয়ার কে ব্যবহার করতে পারব তখন আমাদের আয় রোজগার দুই গুণ চার গুণ ১০ গুন ১০০ গুন এমন কি হাজারগুনও হতে পারে। আপনি কিভাবে আপনার বিজনেস কে বা আপনার কাজকে লিবারেজিং করবেন এটা খুঁজে বের করতে পারাটা সবচাইতে বড় আর্ট। লিভারেজ শব্দটি এসেছে লিভার থেকে লিভার এর মানে হচ্ছে হালকা করা। লিভার এমন একটি যন্ত্র যেটা ব্যবহার করে অনেক ভারী জিনিস কেউ খুব সহজে উঁচু করা যায়। যখন আমরা লিভারেজিং এর সিদ্ধান্তকে ধন-সম্পত্তি এবং সময়ের উপর ব্যবহার করি তখন এগুলোর পরিণাম কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

সময় লিভারেজিং সঠিকভাবে করতে পারলে এক সপ্তাহের কাজের রেজাল্ট এক বছরের কাজের রেজাল্টের সমান হতে পারে। সঠিকভাবে সময় লিভারেজিং পেলে করতে পারলে আপনি যে কাজ এক মাসে করতে পারতেন তা তিন দিনে করা সম্ভব। উদাহরণ হিসেবে ধরুন আপনি যদি একটা রেস্টুরেন্ট চালাতে চান এবং রেস্টুরেন্টের সকল কাজ নিজ হাতে করতে চান থালা বাসন ধোয়া খাবার সার্ভ করা রান্না করা ক্যাসে বসে থাকা সবকিছু যদি নিজ হাতে করতে চান তবে সেটা আপনার জন্য দুর্বিসহ অভিজ্ঞতা হবে । আর এই কাজগুলোকে যদি লিভারেজিং করে মানুষদের মাধ্যমে আপনি করাতে পারেন তবে মাস শেষে যে টাকা মুনাফা হবে সেটা প্রায় বিনা পরিশ্রমে আপনার পকেটে এলো। এটাই হল সময় লিভারেজিং বা অন্যদের দিয়ে বা অন্যদের সময়কে কিনে নিজের কাজে ব্যবহার করা। আজ পর্যন্ত পৃথিবী ব্যাপী যত মানুষ ধনী হয়েছে প্রত্যেকেই কম বেশি এই ফর্মুলাতেই হয়েছে ।
আপনার কাছে কি মনে হয় এমন পদ্ধতি খুজাটাকে জরুরি নয় যার মাধ্যমে আপনি এক টাকাকে ১০০ টাকায় পরিণত করতে পারেন। কিংবা এমন কোন পদ্ধতি কি জরুরি নয় যার মাধ্যমে আপনি এক ঘন্টাকে ১০০ ঘন্টায় কনভার্ট করতে পারেন। কি মনে হয় এটা কতটাই না ভালো হতো যদি একবার কাজ করে বাকি পুরো কাজ লিভারেজিং এর হাতে ছেড়ে দেয়া যায়।আজকে আমি যে বইটি থেকে তথ্যগুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম এর নাম পেরাবোল অফ দা পাইপলাইন। এই বইটি নিয়ে আজকের এটি আমার তৈরি করা চার নাম্বার ভিডিও পূর্ববর্তী ভিডিও গুলো এরকম তথ্যবহুল । তাই সেগুলো দেখার অনুরোধ রইল।

0 / 5. 0